• ...
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | শেষ আপডেট ০১ মিনিট আগে
ই-পেপার

ভোক্তাপ্রিয় পণ্য সম্ভার নিয়ে বাংলাদেশ এডিবল অয়েল

তামাদি তারুণ্য
৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৫, সোমবার, ১০:৫৩
বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেডের কারবার মূলত ভোজ্যতেল নিয়েই। রূপচাঁদা, মিজান, ফরচুন, কিংস ও অলিভয়েলাÑ এই চারটি ব্র্যান্ডের 
মাধ্যমে নানান পদের ভোজ্যতেল উৎপাদন ও বিপণন করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি। এর বাইরে সম্প্রতি তারা ভোক্তাদের জন্য নিয়ে এসেছে চিনিগুঁড়া চাল। সেসব পণ্যের পরিচিতি তুলে ধরছেন তামাদি তারুণ্য
 
রূপচাঁদা সয়াবিন তেল
সরিষার তেল ছাড়াও যে দুনিয়াজুড়ে আরো নানান পদের রান্নার তেল আছে, এ দেশের বেশির ভাগ মানুষই সেটা জানত না। চাহিদাকে গুরুত্ব দিতে গিয়ে যখন সয়াবিনের চল শুরু হলোÑ তখনো কেউ কেউ বাঁকা চোখে দেখেছেন এই তেলকে। কিন্তু স্বাদ ও সাধ্যের সামঞ্জস্য বিচার করে দিনে দিনে সয়াবিন তেলই হয়ে ওঠে এ দেশের মানুষের প্রধান ভোজ্যতেল।
বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেডের পণ্য রূপচাঁদা বিশুদ্ধ সয়াবিন তেল বাজারজাত শুরু হয় ১৯৯৬ সালে। প্রায় একাই সয়াবিনের বোতলজাত তেলের ধারণা নিয়ে এ দেশের ভোক্তাদের মন জয় করে ব্র্যান্ডটি। এখনো দেশের শীর্ষ ভোজ্যতেলের নাম রূপচাঁদা বিশুদ্ধ সয়াবিন তেল।
২০১২ সাল থেকে বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড রূপচাঁদা সয়াবিন তেলে ভিটামিন এ যুক্ত করা শুরু করে।
বিশুদ্ধ ও স্বাস্থ্যসম্মত ভোজ্যতেল উৎপাদন ও বিপণনের মাধ্যমে রূপচাঁদা ব্র্যান্ড হিসেবে ভোক্তাদের পছন্দের প্রথম নাম হয়ে যায় কয়েক বছরের মধ্যেই। দূষিত তেলের ভিড়ে স্বমহিমায় রূপচাঁদা হাজির হয়ে জয় করে নেয় বিভিন্ন ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ডও। বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম ফোরাম পরিচালিত বেস্ট ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ড ২০১৩ ও ২০১৪ এর সেরা ব্র্যান্ডের তালিকায় ৪ নম্বর স্থানে আছে রূপচাঁদা সয়াবিন তেল।
 
রূপচাঁদা পিওর মাস্টার্ড অয়েল
সরিষার তেলের সাথে বাঙালির আজন্ম পরিচয়। সয়াবিনের ডামাডোলেও সরিষার তেলের প্রয়োজনীয়তা বিন্দুমাত্র কমেনি। ভর্তা কিংবা আচার বানাতে সরিষার তেলের বিকল্পই নেই। এ ছাড়া বাঙালির প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় সরিষার তেল রয়েছে স্বমহিমায়, এখনো।
বাঙালির রসনাবিলাসের দিকে নজর দিতে বাংলাদেশ এডিবল অয়েল সয়াবিন তেলের সাথে বাজারজাত শুরু করে সরিষার তেলও। রূপচাঁদা পিওর মাস্টার্ড অয়েল নামে বোতলজাত এই তেলও গুণে-মানে ভোক্তাদের কাছে সমাদৃত।
রূপচাঁদা পিওর মাস্টার্ড অয়েলে সঠিক ও সর্বোচ্চ মান বজায় রাখতে নজর রাখতে হয়েছে বেশ কিছু দিকে। বিশুদ্ধ সরিষার দানা ছাড়া সর্বোচ্চ মানের তেল উৎপাদন সম্ভব না। এখনকার বেশির ভাগ বোতলজাত সরিষার তেলের যে ঝাঁঝ ছিপি খুললে পাওয়া যায়, তার প্রায় সবই কেমিক্যালাইজড। প্রাকৃতিক গন্ধ পেতে চাই সরিষাদানার সঠিক গুদামজাত পক্রিয়া ও বিশুদ্ধ দানা থেকে তেল সংগ্রহ। রূপচাঁদা পিওর মাস্টার্ড অয়েলে সেসবকে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেয়া হয় বলে এই ভোজ্যতেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানটির দাবি।
 
রূপচাঁদা প্রিমিয়াম অ্যারোমেটিক চিনিগুঁড়া রাইস
পোলাও বাঙালির রসনার খেদমত করে আসছে বহু বছর ধরে। শুধু বাঙালিই নয়, উপমহাদেশের বেশির ভাগ মানুষ এই শাহি রেসিপির সাথে পরিচিত। আর বাঙালির পোলাও ছাড়া মাস কাটে না। তবে পোলাও রান্নার জন্য সবচেয়ে অপরিহার্য উপাদান চাল। সাধারণ চাল দিয়ে পোলাও রান্না হয় না। পোলাওয়ের জন্য রয়েছে সুগন্ধযুক্ত আলাদা চাল।
দেশে প্যাকেটজাত পোলাওয়ের চাল উৎপাদন ও বিক্রি করে অনেক কোম্পানিই। বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড সম্প্রতি  রূপচাঁদা প্রিমিয়াম চিনিগুঁড়া রাইস নামে পোলাওয়ের চাল উৎপাদন ও বিপণন শুরু করেছে। প্রতিষ্ঠানটি ভোক্তাদের কাছে গুণগত মানের ব্যাপারে অঙ্গীকারবদ্ধ। তাদের দাবি, রূপচাঁদা প্রিমিয়াম চিনিগুঁড়া রাইস গুণগতভাবে সেরা। স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে উৎপন্ন ও প্যাকেটজাত করা হয় এই চাল।
 
ফরচুন রাইস ব্র্যান হেলথ্
সয়াবিন তেল, পাম অলিন, সরিষার তেল, সানফাওয়ার অয়েল ও অলিভ অয়েলের পাশাপাশি গত বছর বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড নিয়ে এসেছে রাইস ব্র্যান তেল। এই রাইস ব্র্যান তেল বাজারজাত করা হচ্ছে ফরচুন রাইস ব্র্যান হেলথ্ নামে।
ফরচুন ভারতের আদানী উইলমার লিমিটেডের একটি ব্র্যান্ড, যা ভারতের সর্বাধিক বিক্রীত ভোজ্যতেল এবং দীর্ঘ দিন ধরে ভারতের এক নম্বর ভোজ্যতেলের অবস্থান দখল করে আছে। বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড আদানী উইলমার লিমিটেডের একটি সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে ফরচুন রাইস ব্র্যান হেলথ্ নামে বাংলাদেশে প্রথম আদানী উইলমারের ব্র্যান্ড বাজারজাত করছে।
ফরচুন রাইস ব্র্যান হেলথ্ ১০০ শতাংশ রাইস ব্র্যান অয়েল যার ওরাইজেনল কনটেন্ট ১,০০০ মিলিগ্রাম, প্রতি ১০০ গ্রামে (আনুমানিক)। ওরাইজেনল রক্তে এইচডিএলের (ভালো কোলেস্টেরল) মাত্রা বাড়ায়, এলডিএলের (খারাপ কোলেস্টেরল) মাত্রা কমায় এবং শরীরে কোলেস্টেরল কম তৈরি হতে দেয়।
 
মিজান ফর্টিফাইড পাম অলিন
যে দেশের বেশির ভাগ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করে, সে দেশে সবাই যে বোতলজাত বিশুদ্ধ সয়াবিন তেল কেনার সামর্থ্য রাখে না, তা বলা বাহুল্য। তাই বলে তারা কি খোলাবাজারের দূষিত তেল খেয়ে যাবে?
বিশুদ্ধ তেলের ব্যবস্থা না থাকলে হয়তো সেটাই করতে হতো। কিন্তু বাজারে এখন বিশুদ্ধ পাম অয়েলের ব্যবস্থাও রয়েছে। বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড প্রসিদ্ধ মিজান ব্র্যান্ডের বিশুদ্ধ পাম অয়েল বিপণন করছে বেশ আগে থেকেই। সব শ্রেণির মানুষের কথা বিবেচনা করে মিজান ফর্টিফাইড পাম অলিন-এও ভিটামিন এ সংযুক্ত করা হয়েছে।
 
কিংস পিওর সানফাওয়ার অয়েল
শরীরের টিস্যু পুনঃনির্মাণ, সেল ড্যামেজ প্রতিরোধ, ত্বকের শুষ্কতা প্রতিরোধে ভিটামিন ই কার্যকর। ভেজিটেবল অয়েলের মধ্যে সানফাওয়ার অয়েলই সর্বাধিক ভিটামিন ই সমৃদ্ধ হয়ে থাকে।
বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেডের বাহারি ভোজ্যতেলের মধ্যে কিংস পিওর সানফাওয়ার অয়েল গুণগতভাবে বিশ্বমানের। কিংস পিওর সানফাওয়ার অয়েল উৎপন্ন হয় পৃথিবীর সর্বোচ্চ সানফাওয়ার অয়েল উৎপন্নকারী দেশ ইউক্রেনে।
 
অলিভয়েলা এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল
অলিভ অয়েল নানান কাজে বিশ্বজুড়ে সমাদৃত। বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড ২০১০ সাল থেকে বাজারজাত করে আসছে ইতালিয়ান কোয়ালিটির অলিভইলা এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল। এই তেল উৎপন্ন করতে গিয়ে আন্তর্জাতিক মান ধরে রাখার ব্যাপারে প্রতিষ্ঠানটি আন্তরিক। বাগান থেকে জলপাই সংগ্রহ, সঠিক সময়ের মধ্যে ও সঠিক পদ্ধতিতে উৎপন্ন অলিভয়েলা এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল ইউরোপীয় মান বজায় রাখতে সমর্থ হয়েছে। ০.৮ শতাংশেরও কম এসিডিটি নিয়ে অলিভয়েলা এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল ভোক্তাদের কাছে গ্রহণযোগ্য পণ্যে পরিণত হয়েছে ইতোমধ্যেই।
পাঠকের মতামত
আপনার মতামত
নাম
ই-মেইল
মতামত
CAPTCHA Image

ফিচার -এর অন্যান্য সংবাদ
উপরে